Categories
Puzzle

টাইটেল : তৈজসপত্র মূলক ধাঁধা (চতুর্থ ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১৩১

গার্হস্থ্য জীবনের প্রাত্যহিক আচার আচরণের মধ্যে যে সকল তৈজস পত্র ব্যবহৃত হয় , তাদের আকৃতি এবং প্রকৃতি রূপচ্ছলে কিংবা অন্য কোন উপায়ে বর্ণনা করে বাংলার লোক – সাহিত্যে এক বিপুল সংখ্যক ধাঁধা রচিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় “দাঁড়িপাল্লা” সম্পর্কিত কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ আহারে ভহি বাহা ,
পিঠ উপরে ন্যাজ নাচে ,
এই তামাসা কাহা ? (অঞ্চল : ভোমজুড়ি) (উত্তর : দাঁড়িপাল্লা)

★ ইহা কি তাহা ,
উপর দিকে নেজুড় নাড়ে ,
এই তামাসা কাহা ? (অঞ্চল : শ্রীহট্ট) (উত্তর : দাঁড়িপাল্লা)

★ ঐ অলি অলি পাখীটি ,
গলি গলি যায় ,
বেনের দোকানে গিয়ে ,
ডিগবাজী খায় আর খায় । (অঞ্চল : মুর্শিদাবাদ) (উত্তর : দাঁড়িপাল্লা)

★ আট পা এক লেঙ্গুর ,
শুয়ে থাকে পাটুর পুটুর । (অঞ্চল : পুরুলিয়া) (উত্তর : দাঁড়িপাল্লা)

★ বাবাজির হাম্বা ,
দুটো তার গোল গোল ,
একটা তার লম্বা । (অঞ্চল : পরগণা) (উত্তর : দাঁড়িপাল্লা)

★ এক যে আছে ঘোস ,
নাকে নথ পরে ,
ঘরে ঘরে ফেরে । (অঞ্চল : যশোর) (উত্তর : দাঁড়িপাল্লা)

★ একটি কড়ির আটটি আম ,
আরে রাম রাম রাম । (অঞ্চল : নদীয়া) (উত্তর : দাঁড়িপাল্লা)

Categories
Puzzle

টাইটেল : তৈজসপত্র মূলক ধাঁধা (তৃতীয় ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১৩০

গার্হস্থ্য জীবনের প্রাত্যহিক আচার আচরণের মধ্যে যে সকল তৈজস পত্র ব্যবহৃত হয় , তাদের আকৃতি এবং প্রকৃতি রূপচ্ছলে কিংবা অন্য কোন উপায়ে বর্ণনা করে বাংলার লোক – সাহিত্যে এক বিপুল সংখ্যক ধাঁধা রচিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয় ধাপে “উনুন” সম্পর্কিত আরো কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ মামার ছাড়িয়া গেল ,
তে মাথাটা ফেলাইয়া গেল । (অঞ্চল : বরিশাল) (উত্তর : উনুন)

★ এক হাতী তিন মাথা ,
হাতী খায় জঙ্গলের পাতা । (অঞ্চল : রাজশাহী) (উত্তর : উনুন)

★ এক বৈরাগীর তিন টিকি । (অঞ্চল : হুগলি) (উত্তর : উনুন)

★ একটা বুড়ির তিনটি মাথা । (অঞ্চল : বেলপাহাড়ী) (উত্তর : উনুন)

★ উনি উনি উনি ,
আমরা তিনই বুনই ,
উপরে বোঝা নিচুই খোঁচা । (অঞ্চল : পরগণা) (উত্তর : উনুন)

★ ঘুক্কুত ,
বসি আছে তিন বাপ পুত । (অঞ্চল : মাঠা) (উত্তর : উনুন)

★ একটা শালিখের তিনটে মাথা ,
শালিখ গেল কলিকাতা । (অঞ্চল : বেলপাহাড়ী) (উত্তর : উনুন)

★ আমার একটি ভাই ছিল ,
যা দিতাম খেত ,
জল দিলে মরে যেত । (অঞ্চল : মুর্শিদাবাদ) (উত্তর : উনুন)

★ ত্ৰিকৃট পর্বতে চক্রের নন্দন ,
তার ভিতরে লক্ষ্মী নারায়ণ,
যখন ব্রহ্মা দিলেন দরশন ,
লক্ষ্মীর গর্ভে নারায়ণ করিলেন গমন । (অঞ্চল : শ্রীহট্ট) (উত্তর : উনুন)

★ সকল বুড়ি পালিয়ে যায় ,
একটা বুড়ি পালায় না । (অঞ্চল : পুরুলিয়া) (উত্তর : উনুন)

★ মামাদের বাছুরটি ,
খড় খাবার অসুরটি । (অঞ্চল : পুরুলিয়া) (উত্তর : উনুন)

Categories
Puzzle

টাইটেল : তৈজসপত্র মূলক ধাঁধা (দ্বিতীয় ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১২৯

গার্হস্থ্য জীবনের প্রাত্যহিক আচার আচরণের মধ্যে যে সকল তৈজস পত্র ব্যবহৃত হয় , তাদের আকৃতি এবং প্রকৃতি রূপচ্ছলে কিংবা অন্য কোন উপায়ে বর্ণনা করে বাংলার লোক সাহিত্যে এক বিপুল সংখ্যক ধাঁধা রচিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় “উনুন” সম্পর্কিত কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ কালো কালো পক্ষী ,
কালো বনে চরে ,
লক্ষণ পোরে দেখা দিয়ে ,
নখ পুরে মরে । (অঞ্চল : মাঠা) (উত্তর : উনুন)

★ এক বুড়ির তিনটি মাথা ,
সে খায় দেশের পাতা । (অঞ্চল : ঝাড়গ্রাম) (উত্তর : উনুন)

★ নিশিদ্ধিকে সিদ্ধি করে ,
দহি করে সোনা ,
গুরু হয়ে শিষ্যাকে প্রণাম করে ,
এটি কোন জনা ? (অঞ্চল : মাঠা) (উত্তর : উনুন)

★ একটি খাটের তিনটি খুড়ো ,
বসে আছে মহাজন বুড়ো ,
মহাজন বুড়ো টলমল করে ,
মুখ দিয়ে দিয়ে লাল পড়ে । (অঞ্চল : মাঠা) (উত্তর : উনুন ও ভাতের হাঁড়ি)

★ উনি উনি উনি ,
আমরা তিন বুনি । (অঞ্চল : হুগলি) (উত্তর : উনুন)

★ একটু খানি জলে মাছ চুডবুড করে ,
জেলের মেয়ের সাধ্য নাই ,
সেই মাছ ধরে । (অঞ্চল : হাতীবাড়ী) (উত্তর : উনুন)

★ মামারা ছেড়ে যায় ,
তিনটা মাথা ফেলে যায় । (অঞ্চল : ফরিদপুর) (উত্তর : উনুন)

★ একটা ঘুঘুর তিনটা মাথা ,
ঘুঘুটায় কয় কোপাইয়া কথা । (অঞ্চল : বরিশাল) (উত্তর : উনুন)

Categories
Puzzle

টাইটেল : তৈজসপত্র মূলক ধাঁধা (প্রথম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১২৮

গার্হস্থ্য জীবনের প্রাত্যহিক আচার আচরণের মধ্যে যে সকল তৈজস পত্র ব্যবহৃত হয় , তাদের আকৃতি এবং প্রকৃতি রূপচ্ছলে কিংবা অন্য কোন উপায়ে বর্ণনা করে বাংলার লোক সাহিত্যে এক বিপুল সংখ্যক ধাঁধা রচিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় আয়না সম্পর্কিত কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ আনবি রতন ,
করবি যতন ,
দেখায় কেমন ,
আমার মতন । (অঞ্চল : মেদিনীপুর) (উত্তর : আয়না)

★ তিন বর্ণে নাম তার ,
নিজ চেহারা ফুটে উঠে ,
সামনে দিলে একবার । (অঞ্চল : ডোমজুড়ি) (উত্তর : আয়না)

★ মামায় দিলা পুখুরী ,
ভাগিনায় দিলা পাড় ,
টিয়াপাখীরে পানি খাইতে ,
দেখায় সংসার । (অঞ্চল : শ্রীহট্ট ) (উত্তর : আয়না)

★ এতটুকু পুকুরটি তালপাতা ভাসে ,
যার সাথে ভাব নাই ,
সে কেনে হাসে । (অঞ্চল : ঝারগ্রাম) (উত্তর : আয়না)

Categories
Puzzle

টাইটেল : কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (চল্লিশতম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১২৭

শুয়াপোকা সম্পর্কে আমরা কম বেশি পরিচিত। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই এর কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ ক্ষুদ্র জন্তুটি চলেছে রঙ্গে ,
বহু অস্ত্র লইয়ে সঙ্গে ,
আছে চক্ষু নাহি কান ,
বিনা অন্ত্রে মারে বাণ । (অঞ্চল : বর্ধমান) (উত্তর : শুয়াপোকা)

★ পশু নয় পক্ষী নয় ,
জীবের মধ্যে গণনা করা যায় না ,
আগমন বসে তার পৃষ্ঠের উপরে,
না জানিয়া করে যদি কেহ ঘর্ষণ ,
সে সকল বাণে তার বিন্ধে সেই খন । (অঞ্চল : মেদিনীপুর) (উত্তর : শুয়াপোকা)

★ গুড়ার মত খায় ,
গুড়ার মত মলত্যাগ করে । (অঞ্চল : বর্ধমান) (উত্তর : শুয়াপোকা)

★ আইসতে হুকুর হুকুর ,
যাইতে যাইতেও হুকুর হুকুর ,
এই চিল্তা ভাঙ্গি দিবার না পাইলে,
ঘরে গুটি কুকুর । (অঞ্চল : কুচবিহার) (উত্তর : শুয়াপোকা)

★ আকুবারে বাকুড়া বাতি কেনে বুল ,
রস ভোলা রস ঢোলা,
উপরে কেন পড়ুল । (অঞ্চল : হাতীবাড়ী) (উত্তর : শুয়াপোকা)

Categories
Puzzle

টাইটেল : কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (ঊনচল্লিশতম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১২৬

শামুক সম্পর্কে আমরা কম বেশি পরিচিত। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই তৃতীয় ধাপে আরো কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ মামারাই রাঁধে বাড়ে ,
মামারাই খায় ,
আমরাই গেলে পরে ,
ঘরে দুয়ার দেয় । (অঞ্চল : রাজশাহী) (উত্তর : শামুক)

★ এ্যাকনা বুড়ী খই ভাজে ,
মানসি দেখলে ঝাপ ঢোকে । (অঞ্চল : জলপাইগুড়ি) (উত্তর : শামুক)

★ চালালে চলেনা ,
না চালালে চলে ,
কবি কালিদাসের বউ ,
বাসন মাজতে মাজতে বলে । (অঞ্চল : পুরুলিয়া) (উত্তর : শামুক)

★ একটুখানি বেঁটে ,
দোর দেয় এঁটে । (অঞ্চল : পরগণা) (উত্তর : শামুক)

★ লাঠি ঠোন ঠোন ,
পিতায় বাড়ি ,
কোন জন্তুর জিহ্বায় দাড়ি ! (অঞ্চল : ঢাকা) (উত্তর : শামুক)

★ একবেটা খেইটকা ,
ঝাপ দেয় আইটকা । (অঞ্চল : হাওড়া) (উত্তর : শামুক)

★ হগল ঠাকুর ফিরে বাড়ী বাড়ী ,
কোন ঠাকুরে দেখছ তুমি ,
জিহ্বার আগে দাড়ি ! (অঞ্চল : বীরভূম) (উত্তর : শামুক)

★ এমন বেটা জেঠে ,
যে কপাট মারে এটে । (অঞ্চল : মুর্শিদাবাদ) (উত্তর : শামুক)

Categories
Puzzle

টাইটেল : কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (আটত্রিশতম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১২৫

শামুক সম্পর্কে আমরা কম বেশি পরিচিত। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই দ্বিতীয় ধাপে আরো কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ এক মেয়ে বেঁটে,
খিল দেয় এটে । (অঞ্চল : হুগলি) (উত্তর : শামুক)

★ মাংসের শির মাংসের নয় ,
মুখে দোর পিঠে ঘর । (অঞ্চল : নদীয়া) (উত্তর : শামুক)

★ রাজারো ঘোড়া ,
ছুইলে কাইত হই চিৎ হই পড়ে । (অঞ্চল : চট্টগ্রাম) (উত্তর : শামুক)

★ এক বুড়া হাট যায় ,
আমাক দেখি দুয়র দেয় ! (অঞ্চল : রংপুর) (উত্তর : শামুক)

★ পানিত রয় মাছ নয় ,
দু ‘ শিং লাড়ে , মৈষ নয় ! (অঞ্চল : চট্টগ্রাম) (উত্তর : শামুক)

★ পাখী নয় পাখাল নয় ,
মুখে পাড়ে ডিম । (অঞ্চল : বেলপাহাড়ী) (উত্তর : শামুক)

★ রাজার বেটা সাটি ,
কপাট মারে আঁটি । (অঞ্চল : রাজশাহী) (উত্তর : শামুক)

★ এ্যাকনা বুড়ী খই ভাজে ,
মোকে দেখতে দুয়ার ঢাকে । (অঞ্চল : রংপুর) (উত্তর : শামুক)

★ কাটের বস চামের শিং ,
থ্যাদালে বলদ পারে নিল । (অঞ্চল : রাজশাহী) (উত্তর : শামুক)

Categories
Puzzle

টাইটেল : কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (সাইত্রিশতম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১২৪

শামুক সম্পর্কে আমরা কম বেশি পরিচিত। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই এর কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ কালা কালা মেয়া ভাই,
হাটে আর চাটে ,
হাটে তগর চাটে । (অঞ্চল : ফরিদপুর) (উত্তর : শামুক)

★ এ মড় ও মড় তেমড় খায় ,
ভিতরে মাংস উপরে হাড় । (অঞ্চল : বরিশাল) (উত্তর : শামুক)

★ উঠান ঠনঠন ডোঘায় বাড়ি ,
কোন্ জন্তুর জিহ্বায় দাড়ি ? (অঞ্চল : নদীয়া) (উত্তর : শামুক)

★ আমার ভাই বেটে বুটে ,
দোর আঁটে গুটে । (অঞ্চল : শ্রীহট্ট ) (উত্তর : শামুক)

★ দেখে এলাম মাঠে ,
হাটে আর চাটে । (অঞ্চল : যশোর ) (উত্তর : শামুক)

★ মামার পিঠা খায় ,
আমারে দেখিলে দরজা দেয় । (অঞ্চল : পুরুলিয়া) (উত্তর : শামুক)

★ বিধাতা নির্মিত ঘর অতি সুগঠন ,
তাহার মধ্যেতে থাকি করে বিচরণ ,
হস্তপদ নাহি তার মাংসপিণ্ড প্রায় ,
জলের ভিতরে থাকে ,
কিবা সেই হয় ? (অঞ্চল : হাতীবাড়ী) (উত্তর : শামুক)

★ শুনি কলমি লহ লহ করে ,
রাজার বেটা বঁড়শী মারে ,
মারুক বঁড়শী শুকুক ঝিল ,
সোনার কৌটা রূপার খিল ! (অঞ্চল : ফরিদপুর) (উত্তর : শামুক)

Categories
Puzzle

টাইটেল : কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (ছত্রিশতম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১২৩

শঙ্খ সম্পর্কে আমরা কম বেশি পরিচিত। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই এর কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ জলের ভিতরে রয় খায় পঙ্কপানি ,
অষ্টাঙ্গে তার কিছুই নাই ,
হাইড় দু খানি ,
পরের হিতে হিত কইবলম ,
পিঠ কইরলম ছেদা ,
মূর্খেতে বই লবেক কি ,
পণ্ডিতকে লাইগছে ধাঁধা । (অঞ্চল : পুরুলিয়া) (উত্তর : শঙ্খ)

★ জলে তার জন্ম ,
ডাঙ্গায় তার কর্ম ,
সুডাক ডাকে ,
গায়ে তার জামা নাই ,
বিধাতার পাকে । (অঞ্চল : মুর্শিদাবাদ) (উত্তর : শঙ্খ)

★ কভু এসে হাত ধরে ,
কভু মারে চড় ,
অধরে অধর দিলে ,
বলে মধুস্বর ! (অঞ্চল : হুগলি) (উত্তর : শঙ্খ)

★ জল থেকে তুলে এনে সুডাক ডাকে ,
মঙ্গল কাম নিয়ে যায় তাকে । (অঞ্চল : পরগণা) (উত্তর : শঙ্খ)

★ জলে থাকে প্যাক প্যাক ডাকে ,
বাজালেও বাজে ,
কাটলেও কাটে । (অঞ্চল : রাজশাহী) (উত্তর : শঙ্খ)

★ ধ্বক কুড়া লেজ মোচড় । (অঞ্চল : নদীয়া) (উত্তর : শঙ্খ)

★ এখান থেকে মারলুম তাড়া ,
তাড়া গেল সেই বামুন পাড়া । (অঞ্চল : হুগলি) (উত্তর : শঙ্খধনি)

Categories
Puzzle

কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (পঁয়ত্রিশতম ভাগ)। ধাঁধার সংখ্যা : ১২২ মৌচাক সম্পর্কে আমরা কম বেশি পরিচিত। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই দ্বিতীয় ধাপে আরও কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ- ★ গাই গবনো দুধটা মিঠা , ষোল ষোল অবতার , খায় এক পিঠা । (অঞ্চল : পরগণা) (উত্তর : মৌচাক)

★ গাই তো গোবিন দুধ তো মিঠা ,
ষোলশ গোপিনী একটি পিঠা । (অঞ্চল : বেলপাহাড়ী) (উত্তর : মৌচাক)

★ এক খাস , বত্রিশ দুয়ার । (অঞ্চল : হাতীবাড়ী) (উত্তর : মৌচাক)

★ সাত মদধুন বারো কোঠা ,
ডিম দিছে গোটা গোটা ,
হে প্রভু তুমি সাখী ,
ডিম দিছে কোন পাখী ? (অঞ্চল : নদীয়া) (উত্তর : মৌচাক)

★ সরু ডালে ষোলশ পাইড়কা বাঁধা । (অঞ্চল : মাঠা) (উত্তর : মৌচাক)

★ উড়ে বনে কুড়ির বাসা ,
কুত কুতাইয়া চায় ,
ধরতে গেলে মারতে আসে ,
এত বড় দায় ! (অঞ্চল : মাঠা) (উত্তর : মৌচাক)

★ বনের ভিতর থেকে বেরুল হুঁই ,
ছায়া পোনা নিয়ে কাহন দুই । (অঞ্চল : পরগণা) (উত্তর : মৌচাক)

★ আইল রে কালুইখ্যা ,
বইল রে ডালে ,
কার বাবার সাধ্য আছে ,
কালুইখ্যারে লাড়ে । (অঞ্চল : ঢাকা) (উত্তর : মৌচাক)

Categories
Puzzle

টাইটেল : কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (চৌত্রিশতম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১২১

মৌচাক সম্পর্কে আমরা অনেকেই পরিচিত। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই এর কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ মধ্য নদী , গাল্লু খুটা ,
গাই হামলায় দুধ মিঠা । (অঞ্চল : কোচবিহার) (উত্তর : মৌচাক)

★ আরাত পুতনু খুটা ,
গাই গরু তার দুধ মিঠা । (অঞ্চল : রাজশাহী) (উত্তর : মৌচাক)

★ রাজার বাড়ীর ছানদান ,
বত্রিশ ঘরের এক যান । (অঞ্চল : যশোর) (উত্তর : মৌচাক)

★ গাই তো কোকিলা ,
দুধ তত মিঠা ,
সহস্র গোপিনীর একটি পিঠা । (অঞ্চল : বেলপাহাড়ী) (উত্তর : মৌচাক)

★ আচির পাচির চাচির ঘর ,
ষোলটি কন্যার একটি বর । (অঞ্চল : শ্রীহট্ট) (উত্তর : মৌচাক)

★ গাইরে গোবিন্দ দুধবরণ মিঠে ,
ষোলটি পন ধানে একটি পিঠে । (অঞ্চল : হাওড়া) (উত্তর : মৌচাক)

★ ষোলশ গোপিনী একটি পিঠা ,
গাইটি গাভীন দুধটি মিঠা । (অঞ্চল : মানভূম) (উত্তর : মৌচাক)

Categories
Puzzle

টাইটেল : কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (তেত্রিশতম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১২০

কীটপতঙ্গের মধ্যে মাকড়সা আমাদের কাছে অতীব পরিচিত জীব। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও জীব বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই তৃতীয় ধাপে আরও কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ আট পা ষোল হাঁটু ,
মাছ ধরতে গেল টাটু ,
শুকনা ডাঙ্গায় পাতে জাল ,
মাছ ধরেছে চিরকাল । (অঞ্চল : বেলপাহাড়ী) (উত্তর : মাকড়সা)

★ আঁখির মধ্যে পাখীর বাসা ,
ত্রিশূলে জল বিঁধছে চাষা । (অঞ্চল : নদিয়া) (উত্তর : মাকড়সার জাল)

★ ছয় ঠ্যাং নয় হাটু ,
মাছ ধরিতে গেল নাটু ,
শুকনা ভুঁইতে পাতে জাল ,
মাছ ধরে খায় চিরকাল । (অঞ্চল : বরিশাল) (উত্তর : মাকড়সার বাসা)

★ বলদ জেলে জাল পাতে ,
তাহা ছায় না মাছ বাধে ,
তাহা খায় না ! (অঞ্চল : ফরিদপুর) (উত্তর : মাকড়সার বাসা)

Categories
Puzzle

কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (বত্রিশতম ভাগ)। ধাঁধার সংখ্যা : ১১৯ কীটপতঙ্গের মধ্যে মাকড়সা আমাদের কাছে অতীব পরিচিত জীব। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও জীব বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই দ্বিতীয় ধাপে আরও কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ- ★ আষ্ট ঠেং ষোল হাঁটু , জাল বইয়ে রাধা কানু , মাছ ন বাঝে , কেঁজা বাঝে । (অঞ্চল : চট্টগ্রাম) (উত্তর : মাকড়সা)

★ জল গলে না পাথর গলে ,
কবি কালিদাসের বউ ,
এই কথাটি বলে । (অঞ্চল : নদীয়া) (উত্তর : মাকড়সার জালে শিশির)

★ আট ঠ্যাং ষোল হাঁটু,
মাছ মারে নালাটু ,
ফেলায় জাল তা ভেজে না।
মারে মাছে তা খায় না । (অঞ্চল : কোচবিহার) (উত্তর : মাকড়সা)

★ জল গলে না পানি গলে,
কালিদাসের বউ বলে । (অঞ্চল : বেলপাহাড়ী) (উত্তর : মাকড়সা)

★ আট পা ষোল হাঁটু ,
মাছ ধরতে গেল টাটু ,
স্বর্গে ফেলিল জাল ,
টাটু মাছ ধরে খায় চিরকাল । (অঞ্চল : পুরুলিয়া) (উত্তর : মাকড়সা)

Categories
Puzzle

টাইটেল : কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (একত্রিশতম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১১৮

কীটপতঙ্গের মধ্যে মাকড়সা আমাদের কাছে অতীব পরিচিত জীব। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও জীব বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই এর কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ আমার নাম ভাটু ,
আটটা ঠ্যাং ঘোলটা হাঁটু ,
আমি জাল বুনি আটু পাটু (শীঘ্র) ,
শুকনা ডাঙ্গায় জাল পেতে ,
মাছ ধরি চিরকাল । (অঞ্চল : মেদিনীপুর) (উত্তর : মাকড়সা)

★ আট ঠ্যাং চব্বিশ হাঁটু ,
তার নাম মিরা হাঁটু ,
ফেলে জাল উঠানে মারে ,
মাছ খায় না । (অঞ্চল : রাজশাহী) (উত্তর : মাকড়সা)

★ শূন্যে আইসে শূন্যে যায় ,
শূন্যে বান্ধে ঘর ,
বিধাতার নির্বন্ধ তার ,
গর্দান ভোমর । (অঞ্চল : কোচবিহার) (উত্তর : মাকড়সা)

★ জল গলে নাই পাথর গলে ,
কবি কালিদাসের বৌ ,
রাস্তায় চলতে চলতে বলে । (অঞ্চল : বাঁশপাহাড়ী) (উত্তর : মাকড়সা)

★ মাকড়সার জাল জলে গলে না ,
না পাথর গলে ,
কালিদাসের বউ চিল্লায়ে বলে । (অঞ্চল : বেলপাহাড়ী) (উত্তর : মাকড়সা)

★ আট পা ষোল হাঁটু ,
মাছ ধরতে যায় ফটু ,
ডাঙায় ফেলে জাল ,
মাছ ধরে খালে খাল । (অঞ্চল : বর্ধমান) (উত্তর : মাকড়সা)

Categories
Puzzle

টাইটেল : কীটপতঙ্গ মূলক ধাঁধা (ত্রিশতম ভাগ)।
ধাঁধার সংখ্যা : ১১৭

কীটপতঙ্গের মধ্যে মাছি আমাদের কাছে অতীব পরিচিত জীব। এটি সচরাচর আমাদের পরিবেশে দেখতে পাওয়া যায়। এর বৈশিষ্ট্য ও জীব বৈচিত্র্য উপলব্ধি করার লক্ষ্যে বেশকিছু বাঙালি ধাঁধায় যুক্ত হয়েছে। তাই দ্বিতীয় ধাপে আরো কিছু সংখ্যক ধাঁধার দৃষ্টান্ত নিম্নরুপ-

★ দুই পায়ে আসে ,
চার পায়ে বসে ,
দুই পায়ে ঘসে । (অঞ্চল : বর্ধমান) (উত্তর : মাছি)

★ নেই তাই খাচ্ছ ,
থাকলে কোথায় পেতে ?
কহেন ববি কালিদাস ,
পথে যেতে যেতে । (অঞ্চল : বাঁশপাহাড়ী) (উত্তর : মাছি)

★ নাই বলে খাচ্চ ,
থাকলে কোথায় পেতি ? (অঞ্চল : হাওড়া) (উত্তর : মাছি)

★ লতা দিয়ে পাতা ,
তাই দিয়ে তাই ,
খাড় ঝনঝনি নয় ,
পোকার ভনভনি । (অঞ্চল : বরিশাল) (উত্তর : মাছির ডাক)

★ ধানের মতো পাখী গুলো ,
সরষের মত চোঁখ ,
বাচরায় বসে তারা ,
মুচরায় গোঁফ । (অঞ্চল : পরগণা) (উত্তর : মাছি)

★ রাজ রাজ পাখী ,
সর্প যত আঁখি ,
গোড় দুটা মুছে ঘসে । (অঞ্চল : হাতীবাড়ী) (উত্তর : মাছি)