Categories
Humor

জলিল সাহেবের কান্ড ।

★হাইওয়েতে জলিল সাহেবের গাড়ি আটক করল পুলিশ ।

★কর্তব্যরত সার্জেন্ট ধমক দিয়ে বললেন,
“ব্যাপার কী? আপনি এত আস্তে গাড়ি
চালাচ্ছেন কেন?”

জলিল: রাস্তার শুরুতে দেখলাম, ওপরে বড়
করে লেখা ২০। ভাবলাম, এই রাস্তার
সর্বোচ্চ গতিসীমা নিশ্চয় ২০। তাই……

সার্জেন্ট: ওরে বোকা, এটা ২০ নম্বর রাস্তা ।
কিন্তু কথা হচ্ছে, আপনার গাড়ির
পেছনের সিটে বসা দুজন এমন ভয়ার্ত
চোখে চেয়ে আছে কেন? চুল খাড়া
হয়ে আছে, দাঁতকপাটি লাগার দশা
ঘটনা কী?

জলিল: না মানে, একটু আগে ২১২ নম্বর রাস্তা
দিয়ে এলাম তো…!!!

সার্জেন্ট: 🙄😂🥺😥!!!

▶▶▶

⚫Personal Kotha Account⤵⤵⤵
★https://link.kotha.app/app/user/preview/34bhz17gh

Categories
Humor

চাকরির ইন্টারভিউ ।

★দুইজন লোক গেল চাকরির ইন্টারভিউ দিতে
প্রথমজন আগেই প্রশ্নকর্তাকে ঘুষ দিয়ে
রাখছিলো!!!

★প্রশ্নকর্তা প্রথমজনকে প্রশ্ন করলেনঃ তুই ডগ বানান কর ।
★প্রথম জনঃ DOG.
★প্রশ্নকর্তাঃ সাবাস ।

★এরপর তিনি দ্বিতীয় জনকে বললেনঃ তুই হিপোপটেমাস বানান কর ।

★দ্বিতীয় জনঃ এটা তো পারি না।
★প্রশ্নকর্তাঃ তুই পারিস নাই তুই বাদ। ওর চাকরি হয়া গেছে ।
★দ্বিতীয় জনঃ মানি না। আমারে কঠিনটা ধরছেন ওরে সহজটা ধরছেন ।
★প্রশ্নকর্তাঃ আচ্ছা ঠিক আছে আবার। এই তুই বল ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে কতজন মারা গেছে ?
★প্রথম জনঃ ৩০ লক্ষ ।
★প্রশ্নকর্তাঃ সাবাস………
★এরপর দ্বিতীয় জনকে বললোঃ তুই
ওই ৩০লক্ষ মানুষের নাম বল ।
দ্বিতীয় জন বেহুস…………😂

▶▶▶

⚫Personal Kotha Account ⤵⤵⤵
★https://link.kotha.app/app/user/preview/34bhz17gh

Categories
Humor

দুই বন্ধু । 🔸পর্ব১🔸

★বল্টু আর পল্টু দুই বন্ধু বেড়াতে গেল জাপান । তারা সেখানে বড় একটা হোটেলে উঠল।

পল্টুঃ খুব খিদে পেয়েছে দোস্ত।

বল্টুঃ তোর এই খাই খাই সভাবটা আর
গেলনা ।

পল্টুঃ চল না, দোস্ত…..

বল্টুঃ বল কি খাবি ?

পল্টুঃ তুই ওর্ডার দে ।

★বল্টু ওয়েটার কে ডাকল এবং ওয়েটার খাবারের মেনু বইটা দিল। বল্টু ভাষা না বুঝে আন্দাজে একটা টিক দিয়ে দিল। একটু পরে খাবার আসল, পরাটা আর মাংস দু’জনে খুব মজা করে খাচ্ছে………..

বল্টুঃ খুব টেস্ট, এটা খাসির মাংস ।

পল্টুঃ আরে দুর ব্যাটা এটা গরুর মাংস ।

★এই নিয়ে দু’জনের মাঝে ভিষণ ঝগড়া লোকজন জরো হয়ে গেল,ওয়েটার কে ডাকল। ওয়েটারত এদের ভাষা বোঝেনা। তাই এরা মাংসের টুকরা হাতে নিয়ে।

বল্টুঃ এইটা,,, ভ্যা ভ্যা,,,,,,,

পল্টুঃ এইটা,,, হাম্বা হাম্বা,,,,,,

★ওয়েটার কিছুক্ষণ চুপ থেকে বলল……..
ইট’স,,,,, ঘেউ ঘেউ,,,,,,

▶▶▶

★https://link.kotha.app/app/user/preview/34bhz17gh

Categories
Humor

শিক্ষক ও ছাত্র ।

🔸পর্বঃ২🔸

শিক্ষক : গতকাল কি পড়া ছিল

ছাত্র : ভূগোল।

শিক্ষক : বলতো (গাই-বান্ধা) কোথায়?

ছাত্র : মাঠে স্যার ! কেন আপনার কিছু
খাইসে নাকি?

শিক্ষক : 😡😡😡(আমারে তরা মাইরা
ফালা)!!

▶▶▶

★https://link.kotha.app/app/user/preview/34bhz17gh◀◀◀

Categories
Humor

দোকানদার ও ক্রেতা ।

🔸পর্বঃ১🔸

★কেল্টু গিয়েছে নকিয়া মোবাইলের শোরুমে ।
ওখানে গিয়ে দোকানদারকে:- ভাই স্ক্রিন টাচ
মোবাইল দেখান… !

★দোকানদার কথা মতো একটি স্ক্রিন টাচ
মোবাইল দেখাইলেন… !

★ কেল্টু মোবাইলটা ব্যাটারী ফিট করে অন করে কিছু ৷

একটা দেখে আবার বললেন :-
ভাই…? এর থেকে একটু বর মোবাইল দিন ।

★দোকানদার কথা মতো আরো একটি
মোবাইল বের করে দিলেন ।

★কেল্টু ঐরকম আগের মতো ব্যাটারী ফিট
করে অন করে দেখে বললেন :- ভাই এর
চেয়ে আরো বর স্ক্রিন থাকা মোবাইল দেখান…!

★এবার একটু দোকানদার রেগে :- এর চেয়ে
বর স্ক্রিনের মোবাইল তো নকিয়া কোম্পানি এখনো বের
করে নি…! আপনার কত বর
মোবাইলের দরকার বলুনতো এবং কেন…. ?

★কেল্টু :- আরে ভাই যত বেশি বর তত
বেশি ভাল । কারণ আপনার দেখানো মোবাইলে
চিনতে পারলাম নাতো ।

★দোকানদার :- কি চিনতে পারলেন না….?

★কেল্টু :- আরে ঐ যে নকিয়া মোবাইল
যখনই অন করা হয় তখনই দেখি একটা হাতের উপর
আরেকটি হাত বেরিয়ে এসে ধরাধরি করে । আমি অনেক
দিন থেকে চিনার জন্য চেষ্টা করিতেছি যে আসলে ঐ
হাত দুইটি কার… !!! তাই আমি বর মোবাইল খুঁজতেছি।

★দোকানদার বেহুঁশ…! এখনও কোমায়… !!!

★😂😂🤣🤣!!!!

▶▶▶Sium Mahim Khan

Categories
Humor

দুই বন্ধু ।

🔸পর্বঃ১🔸

মানিকঃ দোস্ত আমাকে ১০০০ টাকা ধার দিবি,
৭দিন পরেই দিয়ে দেবো।
রতনঃ এই নে ১০০০ টাকা।
মানিকঃ টাকা হাতে পেয়ে, দোস্ত তুই আমার
অনেক বড়ো উপকার করলি তোর
এই ঋণ আমি কোন দিন শোধ
করতে পারবোনা!

★দুই মাস হয়ে যায় মানিক আর টাকা দেয়
না……★

রতনঃ কিরে আমার টাকাটাতো আর দিলি
না..
মানিকঃ কিসের টাকা?
রতনঃ এর মধ্যেই সব ভুলে গেলি? দুই
মাস আগে ১০০০ টাকা নিয়েছিস।
মানিকঃ তোকে না টাকা নেয়ার সময়ই বলছি,
তোর এই ঋণ আমি কোন দিন শোধ
করতে পারবোনা…..
আবার কিসের টাকা???
রতনঃ 😟😢😞😭!!!

▶▶▶

★Facebook–https://www.facebook.com/siummahim.khan

★Kotha–
https://link.kotha.app/app/user/preview/34bhz17gh

Categories
Humor

শিক্ষক ও ছাত্র ।

🔸পর্বঃ১🔸

শিক্ষকঃ আমাদের বেঁচে থাকার জন্য
অক্সিজেনের বিকল্প নেই। আর এই
অক্সিজেন আবিষ্কৃত হয়েছিল 1773
সালে।

কেস্টদার ছেলেঃ বলেন কি স্যার! ভাগ্যিস
আমার জন্ম 2001 সালে!
1773 এর আগে হলে কি
হতো,ভাবুন একবার!!!

▶▶▶

★Facebook:::https://www.facebook.com/siummahim.khan

★Kotha:::https://link.kotha.app/app/user/preview/34bhz17gh

Categories
Humor

আবহাওয়াবিদ বন্ধু ।

দুই বন্ধু পিকনিকে গেছে।রাতে একটি তাঁবু টানিয়ে তার ভেতর ঘুমিয়ে পড়ল। মাঝরাতে এক বন্ধু আরেক বন্ধুকে
ডেকে তুলল।

১ম বন্ধু : দোস্ত, আকাশ দেখতাছস?��
২য় বন্ধু : হ দোস্ত। দেখতাছি তো।
১ম বন্ধু : কি বুঝলি?
২য় বন্ধু : আকাশে কোন মেঘ নাই। অনেক তারা দেখা
যাচ্ছে। তার মানে, আজ বৃষ্টি হবে না।😎
১ম বন্ধু : ওরে আবহাওয়াবিদের বাচ্চা! আমাগোর তাবুডা
চুরি হইয়া গেছে!!!