Categories
Lifestyle

Ami sunechi sedin tumi Moushumi Bhowmik Cover by Rishi Panda.

https://fb.watch/Eb8lGDXwM

Categories
Lifestyle

ভ্যাকসিন ট্রায়ালে বাংলাদেশি চিকিৎসক তিতাস মাহমুদ

বিখ্যাত নাট্যকার অধ্যাপক মমতাজ উদদীন আহমদের ছেলে তিতাস মাহমুদ যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত। করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারে শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) ফাইজারের ফেইজ থ্রি ট্রায়ালে যুক্ত হয়েছেন তিনি। ফেসবুকে তিতাস লিখেছেন, করোনা মহামারির শুরু থেকে সবাই অত্যন্ত শ্রদ্ধাভরে আমাদের ‘ফ্রন্ট লাইন হিরো’ বলে আসছেন। এই ঢালাওভাবে বলার ব্যাপারটিতে সত্যি ব্যক্তিগতভাবে আমি কখনোই আহ্লাদিত হইনি। কিন্তু আজ করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কারে ‘ফাইজারের ফেইজ থ্রি ট্রায়াল’-এর একজন সাবজেক্ট হতে পেরে নিজেকে বেশ ভাগ্যবান মনে হচ্ছে।

তিনি কীভাবে যুক্ত হলেন এই যজ্ঞে, ভ্যাকসিন নেওয়ার পর্যায়ক্রমগুলো কেমন, কতদিন তাকে এই পরীক্ষার মধ্যে থাকতে হবে এসব নিয়ে তিতাস মাহমুদ কথা বলেছেন বাংলা ট্রিবিউনের সঙ্গে।

শুরু হলো কীভাবে

তিতাস মাহমুদ বলেন, ‘আমি যে হাসপাতালে কাজ করি, সেটি একটি রিসার্চ হাসপাতাল। এখানে প্রায় ত্রিশ হাজার লোক কাজ করে। আমাদের সবার কাছে একটি ইমেইল করা হয় যে, ফাইজারের রিসার্চ সেন্টার সাড়ে ৫শ স্বেচ্ছাসেবক নেবে। ওয়েবসাইটেও দেওয়া হয়। আমি নিজ উদ্যোগে পরবর্তী খোঁজগুলো নিতে শুরু করি। তাদের চিফকে ফোন করে বলি, আমি অংশ নিতে আগ্রহী। তারা আমার সঙ্গে প্রাথমিকভাবে কথা বলা শুরু করে।

পর্যায়গুলো কী কী ছিল

ওরা প্রথমে আমার সঙ্গে ফোনে কথা বলে আমার পার্সোনাল তথ্যগুলো নেয়, আমার কোনও রোগ আছে কিনা, কোনও ধরনের ওষুধ সেবন করি কিনা। সেসব খুব জরুরি না, কারণ ফেজ-থ্রি ট্রায়ালে ওরা সব ধরনের রোগীই থাকুক সেটা চায়। ১৮ থেকে ৮২ বছর বয়সীদের মধ্যে এটি করা হচ্ছে। এরপর তারা আমাকে ইমেইলে ২৬/২৭ পাতার একটি শর্তনামা পাঠায় যেখানে প্রধান হলো আমি একেবারেই স্বপ্রণোদিত হয়ে স্বেচ্ছায় এতে অংশ নিতে রাজি হয়েছি সেটা ঘোষণা দিতে হবে।

এরপরে তাদের প্রিন্সিপাল ইনভেস্টিগেটরের সঙ্গে মুখোমুখি বসতে হলো। তিনি জানতে চাইলেন, এই শর্তনামার কোনও বিষয়ে আমার কোনও প্রশ্ন আছে কিনা, আমি যে কয়টি প্রশ্ন করেছি সেসবের উত্তর তিনি দিয়েছেন এবং আমি স্বাক্ষর করি। এরপরে আমার রক্তচাপ দেখা হয়। এরপর আমার কোভিড টেস্ট করা হয়। তখন আমি জানতে চাইলাম, পজিটিভ এলে আমি ট্রায়ালে অংশ নিতে পারবো কিনা, সেসময় তারা আমাকে জানায়, পজিটিভ নেগেটিভের সঙ্গে নিতে পারা না-পারার কোনও সম্পর্ক নেই। এসব ডাটা একটা জায়গায় কোড নেমে সংরক্ষিত হবে। যখনই আমি তাদের সাবজেক্ট হলাম, তখনই আমি আর তাদের কাছে কোনও ব্যক্তি না, কোড। এরপর আমার ২৫ মিলিগ্রাম পরিমাণ রক্ত নেওয়া হলো অ্যান্টিবডি টেস্টের জন্য। সেটিও ডাটার কাজে লাগবে। অ্যান্টিবডির কোন পর্যায়ে আমার ট্রায়াল শুরু হচ্ছে সেটা বোঝার জন্য এই পরীক্ষা। এরপর আমাকে একটা ইনজেকশন দেওয়া হয়। এবং এভাবে আমি যুক্ত হই।

এর পরের ধাপগুলো কী

আগামী তিন সপ্তাহ পরে অক্টোবরের ৩ তারিখ আমার আরেকটি ভিজিট আছে। দুই বছর তারা আমাকে ফলোআপে রাখবে এবং তাদের সঙ্গে ছয়টি ভিজিট হবে। এরমাঝে আমার মোবাইলে একটি অ্যাপ যুক্ত করে দিয়েছে। প্রতিসপ্তাহে সেখানে আমার অবস্থা তাদের জানাতে হবে, বেসিক কিছু প্রশ্নের জবাব দিতে হবে। এর মাধ্যমে তারা বুঝবে তাদের সাবজেক্ট কেমন আছে।

কেন যুক্ত হলাম

আমি আসলে নিজের অসহায়ত্বের জায়গা থেকে যুক্ত হয়েছি। কোভিড রোগীদের জন্য কিছুই করতে পারিনি। কেবল অসহায়ের মতো মাথায় হাত বুলিয়ে দিয়ে বলেছি, ভালো হয়ে যাবে। সেই অসহায়ত্বের জায়গা থেকে মনে হয়েছে এর মাধ্যমে যদি বিজ্ঞানকে সহায়তা করতে পারি।

পরিবারের সদস্যদের প্রতিক্রিয়া

তিতাস মাহমুদের দুই ছেলে। পরিবারের সদস্যরা উদ্বিগ্ন হয়ে উঠবে ভেবে আমি আগে থেকে কিছু জানাইনি। কিন্তু যখন আমি ট্রায়ালে অংশ নিয়েছি জানালাম তারা এটিকে কোনোভাবেই অনুৎসাহিত করেননি। আমার মা, স্ত্রী সবাই খুব স্পোর্টিংলি নিয়েছেন।

কী আছে শর্তাবলিতে

এই ২৬/২৭ পাতার শর্তাবলি আসলে আমার সুরক্ষা নিশ্চিত করা এবং তাদের করণীয় বিষয়ে জানানো। আমি স্বেচ্ছায় ট্রায়ালে যুক্ত হচ্ছি বলার পাশাপাশি আমি যেকোনও সময় চাইলে যেকোনও স্তরে গবেষণাটি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিতে পারি, আমার কোনও কাজে সেটির প্রভাব পড়বে না। বলা আছে−ভ্যাক্সিনটি সিন্থেটিক, ল্যাবে তৈরি, ফলে এখানে থেকে করোনা হবে না। কিন্তু আক্রান্ত হলে সেটা কীরকম রিঅ্যাক্ট করবে সেটি জানা নেই, ক্ষতি হতে পারে এমনকি মৃত্যুও হতে পারে। আমার সব তথ্য গোপন থাকবে। তবে অন্য কোনও কারণে আমার নিজস্ব চিকিৎসক যদি আমার শারীরিক কন্ডিশন জানতে চান, তাহলে আমাকে সঙ্গে সঙ্গে গবেষণা থেকে মুক্ত করে আমার তথ্য চিকিৎসককে দিয়ে দেওয়া হবে। যদি কখনও সাবজেক্টের মনে হয় তার সঙ্গে ন্যায় হচ্ছে না, সে আইনের আশ্রয় নিতে পারবে। আর নারীদের ক্ষেত্রে অবশ্যই ট্রায়াল শুরুর ছয় মাসের মধ্যে কোনোভাবেই অন্তঃসত্ত্বা হওয়া যাবে না, পুরুষেরা কোথাও তাদের স্পার্ম দান করতে পারবেন না।

https://www.banglatribune.com/others/news/642185/%E0%A6%AD%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%BE%E0%A6%95%E0%A6%B8%E0%A6%BF%E0%A6%A8-%E0%A6%9F%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A7%9F%E0%A6%BE%E0%A6%B2%E0%A7%87-%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%82%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B6%E0%A6%BF-%E0%A6%9A%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%BF%E0%A7%8E%E0%A6%B8%E0%A6%95-%E0%A6%A4%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A6%BE%E0%A6%B8-%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B9%E0%A6%AE%E0%A7%81%E0%A6%A6

Categories
Lifestyle

আসছে শীতে করোনার ‘সেকেন্ড ওয়েভ’!

আসছে শীত মৌসুম। চিকিৎসকসহ জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শীতের সময় যেকোনও ভাইরাসজনিত রোগ বাড়ে। এ সময়ে মানুষের শরীরে ইমিউনিটি কমে যায়। এ কারণে শীতে করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবা বেশি; যদি আমরা সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ না করি।
গত ২৮ আগস্ট স্বাস্থ্য অধিদফতরের নবনিযুক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম কোভিড-১৯ নিয়ে জনস্বাস্থ্য বিষয়ক জাতীয় কমিটির সঙ্গে অনলাইন সভা করেন। সেখানে আট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আট সদস্যই উপস্থিত ছিলেন। ওই সভার নথি সূত্রে জানা যায়, সেখানে করোনাবিষয়ক ৭টি এজেন্ডা নিয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত হয়। এর মধ্যে ৩ নম্বরেই রয়েছে শীতকালের করোনা পরিস্থিতি।
সেখানে মহাপরিচালক বলেন, “সামনেই শীতের মৌসুম, সবাই ভাবছে শীতের সময় ‘সেকেন্ড ওয়েব বা দ্বিতীয় ঢেউ’ আসতে পারে।” এ বিষয়ে জনস্বাস্থ্য বিষয়ক জাতীয় কমিটির মতামত কী এবং অধিদফতর এর জন্য কী করতে পারে তা জানতে চান মহাপরিচালক। পরে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত হয় ‘সেকেন্ড ওয়েভ’ এর জন্য এখনি প্রস্তুতি নেওয়া প্রয়োজন। এখনি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পারলে সংক্রমণ কমানো যাবে। কন্টাক্ট ট্রেসিং, কোয়ারেন্টিন, আইসোলেশন জোরদার ও তদারকি করতে হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়।

একইসঙ্গে সেখানে জনগণকে সচেতন করতে কী কী পদক্ষেপ নেওয়া যেতে পারে বলেও প্রশ্ন ওঠে। সেই সঙ্গে কী কী পদক্ষেপ নিলে করোনার নমুনা পরীক্ষা বাড়বে, সে বিষয়ে মহাপরিচালক জানতে চান কমিটির সদস্যদের কাছে। পরে সিদ্ধান্ত হয়, আইন করে মাস্ক পরানো এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নিয়ম করতে হবে। একইসঙ্গে এ বিষয়টি নিশ্চিত করতে কমিউনিটি এনগেজমেন্ট বাড়াতে হবে। প্রতিটি উপজেলায়, সিটি করপোরেশনে, ওয়ার্ডে কমিউনিট গ্রুপ করতে হব; যারা স্বাস্থ্যবিধির নিয়ম মেনে চলতে এলাকার মানুষকে উদ্বুদ্ধ করবে।
শুরু থেকেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলে এসেছে করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে মানুষকে ঘরের ভেতরে থাকতে এবং শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার মতো পদক্ষেপ ভাইরাসের সংক্রমণের গতি কমিয়ে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। যদিও এগুলোকে প্রতিরক্ষামূলক পদক্ষেপ হিসেবে উল্লেখ করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে, ‘এটা জিততে সাহায্য করবে না।’
 
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আরও বলেছে, ‘জয় পেতে হলে আমাদের আগ্রাসী আরও সুনির্দিষ্ট কৌশল গ্রহণ করতে হবে। প্রতিটি সন্দেহভাজন ব্যক্তির পরীক্ষা করতে হবে। শনাক্ত হওয়া প্রত্যেক ব্যক্তিকে আইসোলেশন ও যত্নে রাখতে হবে। আর তাদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের খুঁজে বের করে কোয়ারেন্টিনে রাখতে হবে।’
বাতাস করোনাভাইরাস ট্রান্সমিশনের অন্যতম বাহক বলে জানান জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ কমিটির সদস্য অধ্যাপক ডা. লিয়াকত আলী। বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেন, ‘শীতের সময় ঘর বদ্ধ থাকে এবং ভেন্টিলেশন কম থাকে বলে এসব রোগ বাড়ে। শীতে অনেকে ঘরের দরজা জানালা বন্ধ রাখে, সেটা বাসা বাড়ি এবং অফিসগুলোতেও। এতে করে সবার হাঁচি কাশি আবদ্ধ ঘরের বাতাসে জমা হয়। তাই সংক্রমণ কমাতে ভেন্টিলেশনের ব্যবস্থা করতে হবে।’
বাংলাদেশের ক্ষেত্রে আমরা সেকেণ্ড ওয়েভ বলবো কীনা প্রশ্নে অধ্যাপক লিয়াকত আলী বলেন, ‘ফার্স্ট ওয়েভের পরে একটা সুপার ইমপোজড সুপার ওয়েভ আসবে… ।’
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে ‘রেট অব পজিটিভিটি’ বা সংক্রমণের হার পাঁচের নিচে নামলে ‘প্যান্ডেমিক কন্ট্রোলে’ আছে বলে ধরা হয়। 
বর্তমানে দেশে করোনার উপস্থিতি কী অবস্থায় রয়েছে জানতে চাইলে অধ্যাপক লিয়াকত আলী বলেন, ‘শুরু থেকেই কোনও নিয়ন্ত্রণমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। শুরুর দিকে যদি পদক্ষেপ গ্রহণ করে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা যেত, তাহলে হয়তো একটা ঢেউ উঠে সেটা নিচে নেমে যেত। কিন্তু সেটা দেশে হয়নি। তখন যদি নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়িয়ে রোগী শনাক্ত করে তাদের আইসোলেশন করে তাদের কন্টাক্টে আসাদের কোয়ারেন্টিন করা যেত, তাহলে কিন্তু সংক্রমণ কমতো। কিন্তু আমরা তো সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণেই আনতে পারিনি।’ ‘আমাদের দেশে প্রো লং হচ্ছে, ফ্লাকচুয়েশন হচ্ছে।’-বলেন অধ্যাপক লিয়াকত আলী। 
শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজের ভাইরোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. জাহিদুর রহমান বলেন, ‘শীতের সময় আবহাওয়ার কারণে সর্দি কাশি বেশি হয়, আবার যেকোনও ছোঁয়াচে রোগ শীত ও বর্ষাতে বেশি হয়। একইসঙ্গে হিউমিলিটি যখন ড্রাই থাকে, তখন সেটা বাতাসে বেশিক্ষণ থাকে। এ জন্য সংক্রমণের সম্ভাবনাও বাড়ে।’
তিনি বলেন ‘অ্যাজমা বা শ্বাসকষ্ট যাদের থাকে, তাদের শীতের সময়ে এসব রোগের টেন্ডেসি বাড়ে। এর কারণে ভাইরাসের শিকার হলে সেটা সিভিয়ার হয়ে যায়। তাই আমরা শীতকালের বিষয়ে বেশি কনসার্ন।’
শীতে যে সেকেন্ড ওয়েভ আসতে পারে আর সেটা প্রথম ওয়েভের চেয়ে বেশিও হতে পারে মন্তব্য করে ডা. জাহিদুর রহমান বলেন, ‘শীতের আগে সংক্রমণের হার কমে গেলেও শীতের সময়ে আরেকটা ঢেউ আসতে পারে।’
শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যালের এই চিকিৎসক বলেন ‘শীতের সময়ে সংক্রমণ বাড়বেই। এটা এখন কমলেও পরে বাড়বে। এখন প্ল্যাটু অবস্থাতে থেকেও শীতের সময় বাড়বে। একে সেকেন্ড ওয়েভ বলাই যায়।’ তাই সংক্রমণ কমাতে এখন থেকেই পদক্ষেপ ও প্রস্তুতি নেওয়া দরকার বলে মনে করেন তিনি।

https://www.banglatribune.com/national/news/640541/%E0%A6%86%E0%A6%B8%E0%A6%9B%E0%A7%87-%E0%A6%B6%E0%A7%80%E0%A6%A4%E0%A7%87-%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A7%8B%E0%A6%A8%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E2%80%98%E0%A6%B8%E0%A7%87%E0%A6%95%E0%A7%87%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A1-%E0%A6%93%E0%A7%9F%E0%A7%87%E0%A6%AD%E2%80%99

Categories
Lifestyle

Sanofi, GSK launch trial for Covid-19 protein-based vaccine

The two companies are scaling up manufacturing in order to be ready to produce up to one billion doses in 2021 

French drugmaker Sanofi and Britain’s GlaxoSmithKline said they had started a clinical trial of their protein-based Covid-19 vaccine candidate, and aimed to reach the final testing stage by December. 
If the results are conclusive, Sanofi and GSK hope to get the vaccine approved in the first half of next year. 
The trial is currently in a “Phase 1/2 study” aimed at evaluating the safety, tolerability and immune response of the vaccine in 440 healthy adults across 11 investigational sites in the United States. 
The vaccine candidate uses the same recombinant protein-based technology as one of Sanofi’s seasonal influenza vaccines. It will be coupled with an adjuvant, a substance that acts as a booster to the vaccine, made by GSK. 
The two companies are scaling up manufacturing in order to be ready to produce up to one billion doses in 2021. 

https://www.dhakatribune.com/health/coronavirus/2020/09/04/sanofi-gsk-launch-trial-for-covid-19-protein-based-vaccine

Categories
Lifestyle

Congratulations to the Leaderboard winners of August 2020!

https://kotha.app/leaderboard.html

Categories
Lifestyle

Covid-19: Govt lifts bar on public movement amid lingering pandemic

The government will also allow public transports to carry passengers at full capacity at regular fare from September 1

The government has lifted restrictions on movement and activities for the public starting Tuesday, surprisingly at a time when the country continues to record large numbers of new Covid-19 cases every day.
In a circular on Monday, the cabinet division notified that the directives on public movement do not include the ban on leaving residences at night without urgent need.
Also, there will be no bar on movement after 10pm from September 1 as it was not mentioned in the new government circular. 
Similarly, the government will also allow public transports to carry passengers at full capacity at regular fares from September 1, withdrawing its previous directive of carrying passengers at half capacity with 60% hiked fare.
At the same time, Bangladesh Railway will start selling tickets for all local, mail, and commuter trains at the stations from September 5, but will continue to carry half of its passenger capacity as enforced during the pandemic. 
Meanwhile, Bangladesh Road Transport Authority (BRTA) has been considering allowing motorcycle-based ride-sharing services to resume soon.

https://www.dhakatribune.com/bangladesh/2020/09/01/covid-19-govt-lifts-bar-on-public-movement-amid-lingering-pandemic

Categories
Lifestyle

বিশ্বের সবচেয়ে দামি আতর

বিশ্বের সবচেয়ে দামি আতর

বিশ্বের সবচেয়ে দামি আতর

Posted by dbcnews.tv on Thursday, August 27, 2020

Categories
Lifestyle

১ সেপ্টেম্বর থেকে বাসে আগের ভাড়া: কাদের

করোনাভাইরাস মহামারীর আগে বাসে ভাড়ার যে হার ছিল, আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে সেই হারে ভাড়া নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার জাতীয় সংসদ ভবন এলাকায় নিজের সরকারি বাসভবন থেকে ঢাকা সড়ক জোনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে তিনি একথা জানান।
ওবায়দুল কাদের বলেন, “সামগ্রিক পরিস্থিতি এবং জনস্বার্থ বিবেচনা করে সরকার আগামী ১ সেপ্টেম্বর হতে গণপরিবহনের আগের নির্ধারিত ভাড়ায় ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।”
এ বিষয়ে মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।
কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধে ৬৬ দিনের লকডাউন শেষে গত ১ জুনে থেকে শর্তসাপেক্ষে বাস চলাচল শুরু হয়।
স্বাস্থ্যবিধি মানতে গিয়ে বাসমালিকদের ক্ষতি পোষাতে আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লা এবং নগর পরিবহনের বাস ও মিনিবাসের ভাড়া তখন ৬০ শতাংশ বাড়ানো হয়। তবে ভাড়া বাড়লেও স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত বলে যাত্রীদের অসন্তোষ রয়েছে।
তিন মাস পর আগের ভাড়ায় ফেরার ক্ষেত্রে কয়েকটি শর্ত সংশ্লিষ্টদের প্রতিপালন করতে হবে বলে মন্ত্রী কাদের জানান।
“গণপরিবহনের যাত্রী, চালক, সুপারভাইজার, চালকের সহকারী, টিকেট বিক্রয়কারীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে। হাত ধোয়ার জন্য পর্যাপ্ত সাবান পানি অথবা হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে। আসন সংখ্যার অতিরিক্ত কোনা যাত্রী পরিবহন করা যাবে না। অর্থাৎ যত সিট তত যাত্রী পরিবহন নীতি কার্যকর হবে। দাঁড়িয়ে যাত্রী পরিবহন করা যাবে না।”
প্রতিটি ট্রিপের শুরু এবং শেষে যানবাহন জীবাণুমুক্ত করার শর্তও দেওয়া হয়েছে।
“আমি নিয়ম মেনে এবং শর্ত মেনে পরিবহন চালানোর জন্য পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের আহ্বান জানাচ্ছি। পাশাপাশি যাত্রী সাধারণকেও মাস্ক পরিধানসহ নিজের সুরক্ষায় সচেতন থাকার অনুরাধ জানাচ্ছি।”
মহামারীর এই পরিস্থিতিতে আইন অমান্যকারী যানবাহনের বিরুদ্ধে নিয়মিত কার্যক্রম জোরদারে বিআরটিএকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়ার কথাও জানান মন্ত্রী।

https://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1795781.bdnews

Categories
Lifestyle

Oshanto – Ami Hip Hop Bangla Hip Hop Song 2020

Ami Hip Hop by Oshanto.I am a Garo Bangladeshi Rapper. Follow me to stay up to date with my music.Watch in HD on…

Posted by IamI-Oshanto on Thursday, August 13, 2020

Categories
Lifestyle

শিরোনাম মোস্তফা কামালের মেয়ের অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য! তানজিমা মোস্তফা (ডিরেক্টর, মেঘনা গ্রুপ)

মোস্তফা কামালের মেয়ের অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য! তানজিমা মোস্তফা (ডিরেক্টর, মেঘনা গ্রুপ।)

মেঘনা গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান মোস্তফা কামালের মেয়ের অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য! তানজিমা মোস্তফা (ডিরেক্টর, মেঘনা গ্রুপ।)

Posted by Worthy Talks on Thursday, August 20, 2020

Categories
Lifestyle

Kotha app spreads wings to Sri Lanka

Kotha, Bangladesh’s maiden social and lifestyle app, is set to embark on a glorious maiden voyage from the Bay of Bengal to Indian Ocean’s island Sri Lanka as part of the company’s ambitions to be a continental superpower as a social networking service provider.

It has finalised a deal with Sri Lankan Next Day Technologies to establish a joint venture company to run the app in the moniker of Katha and the contract will be signed in September.

“This is a proud moment for Bangladesh as for the first time a homegrown social media and lifestyle app will now be available in another country,” Mahboob Zaman, chairman of Kotha Technologies Limited, told The Daily Star yesterday.

Created by a team of Bangladeshi developers, software engineers and data scientists, Kotha has the mind-boggling capability to send messages, make voice calls, order grocery and food, stream music and movies and buy tickets, along with other functionalities.

It is similar to South Korea’s Kakaotalk, China’s WeChat and the Phillippines’ Tantan.

The beta version of the Kotha app was rolled out on 12 February for both Android and iOS and has so far been downloaded about 1.5 lakh times.

“To me, Kotha is our Facebook, our PayPal, Netflix, Twitter and WhatsApp,” said Zunaid Ahmed Palak, state minister for ICT, at the app’s launch.
Another country has expressed interest in Kotha, according to Zaman.

“So we want to spread our app to different countries, particularly in Asia,” he added.
Katha will have the Sri Lankan languages and customised to suit local preference. Kotha Apps & Technologies, which was initiated in 2015, will provide the full technology support for the Sri Lankan tie-up.

“As it is a joint venture, it will not only brighten the image of the country but we will also get a share of the profit,” said Tashfin Delwar, chief executive officer of Kotha Technologies.

The Sri Lankan company, for now, has an e-commerce business and has a partnership with Dialog Axiata, a telecom company with a subscriber base of about 14 million. It also has a partnership with a top Sri Lankan mobile financial service provider.

“So, thousands of Sri Lankan users will be benefited from the platform.”
The server of the app will also be controlled by Kotha Technology.

Delwar said Katha in Sri Lanka will have the same features that are in the app in Bangladesh: chat, post, feeds, free calls, stickers, lifestyle contents.
The joint venture latter will partner with different Sri Lankan entities to provide smooth service in payment and different lifestyle products and services.
Despite its designs to spread its wings, Kotha’s main focus remains in targeting the Bangladeshi population.

“Indian government has banned many Chinese apps, including TikTok, and they now want to build a local app to replace them. In many countries around the world, people are preferring local tech platforms,” Delwar said.

Kotha is constantly reviewing the recommendation of the users and able to provide more customised service for locals than the global tech giants like Facebook and others.

“We are a local entity and we know best what the people of this country want,” he added.
For instance, Kotha on 14 April launched a virtual hospital — HelloDoc — where patients can consult doctors through video conferencing and have certain medical tests done at home to help the country fight coronavirus.

It also added a feature where users can see hospital information such as the availability of ICU beds in a hospital.
Bangladeshi customers are generating a lot of data now by using different digital services and this will soon turn into a minefield, said Zaman, a renowned technology entrepreneur and managing director of DataSoft Systems Bangladesh.

Every year, different social media platforms like Facebook and Google are earning thousands of crores of taka from Bangladesh through users’ data and that helps the brands connect with their customers as well, Delwar said.

If a locally developed platform gets the popularity, the data will be protected and save thousands of crores taka from flying out of the country.

“Certainly, data will be the next currency and if we have access to the data, people will experience a drastic change in their lives,” said Zaman, also a former president of Bangladesh Association of Software and Information Services.
On data protection, Delwar said protecting user data is vital and so far, Kotha has handled it dextrously.
Kotha is also planning to introduce a new feature where a business account can be opened and it will help build local professional networking and selling products.

Small and medium entrepreneurs can sell their products through the app, he added.
Besides, there will be a digital marketplace in the app where content creators can sell their digital products and services.

To facilitate the service, Kotha is signing a deal with local mobile financial service provider bKash over payment integrating next week.

https://www.thedailystar.net/business/news/kotha-app-spreads-wings-sri-lanka-1951705

Categories
Lifestyle

বিদেশগামী ব্যক্তিদের করোনা টেস্ট করার নিয়মাবলী

বহুদিন পর আন্তর্জাতিক বিমান খুলে দেয়ার পর অনেকেই দেশের বাহিরে যাওয়ার কথা ভাবছেন। কিন্তু সে ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে করোনা টেস্ট করে তার রিপোর্ট নিয়ে তবেই যেতে পারবেন। আমি কতগুলো কমন প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছি।

১) আমি কবে টেস্ট করাব???
উত্তরঃ আপনার যে সময় ঢাকা থেকে ফ্লাইট ছাড়বে তার পূর্বের ৭২ ঘন্টার মধ্যে। সহজ হিসাব এরকম।
– মনে করুন আপনি আজ সকালে স্যাম্পল দিয়েছেন।
– আগামিকাল বিকালে আপনি রিপোর্ট পাবেন।
– পরশুদিন আপনার ফ্লাইট থাকবে।
এই রকম সময় মিলিয়ে চলে আসবেন। তাহলে ৭২ ঘন্টার ঝামেলায় পরবেন না।

২) টেস্ট কোথায় করাব?
উত্তরঃ DNCC করোনা আইসোলেশন সেন্টার,মহাখালী, ঢাকা (মহাখালী বাস স্ট্যান্ড সংলগ্ন)।

৩) টেস্ট করাতে কি কি জিনিস লাগবে?
উত্তরঃ ৩ টি জিনিস
– আপনার পাসপোর্ট এর ফটোকপি
– আপনার এয়ার টিকেটের কপি
– ৩,৫৩৫ টাকা

৪) কখন টেস্ট করাতে আসব?
উত্তরঃ প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ২ টা।

৫) রিপোর্ট কখন পাব?
উত্তরঃ যেদিন স্যাম্পল দিবেন তার পরের দিন দুপুর
২ টা থেকে ৪ টা।

৬) শুক্রবার, ঈদের দিন বা অন্য সরকারি ছুটির দিন খোলা থাকবে?
উত্তরঃ সপ্তাহ ৭ দিনই খোলা থাকবে। কোন প্রকার ছুটিতে বন্ধ থাকবেনা।

৭) পূর্বে এপয়েনমেন্ট দিতে হবে?
উত্তরঃ না। নির্দিষ্ট সময় হিসেব করে সকালে চলে আসবেন। পূর্বে এপয়েনমেন্ট দেয়ার কিছু নেই।

৮) টাকা কি আগে থেকে রকেট করতে হবে?
উত্তরঃ না। ক্যাশ নিয়ে আসলেই হবে। ভিতরে রকেটের এজেন্ট আছে। তারা করে দেবে।

৯) আমার বাচ্চা আছে, আমার মা বয়স্ক। যেয়ে কি অনেকক্ষণ তাদের বসে থাকতে হবে?
উত্তরঃ না। তাদের লাইনে আগে দেয়া হয় যাতে কষ্ট কম হয়।

১০) বাসায় থেকে স্যাম্পল নেয়া হয় কি না?
উত্তরঃ না। আপনাকে এসেই স্যাম্পল দিয়ে যেতে হবে।

১১) রিপোর্ট কোথায় পাব?
উত্তরঃ ২ ভাবে পেতে পারেন।
– DNCC করোনা আইসোলেশন সেন্টারে নির্দিষ্ট দিনে দুপুর ২-৪ টা পর্যন্ত রিপোর্ট দেয়া হবে।
covid19reports.dghs.gov.bd এই ওয়েব পেজে দুপুর ২ টার পর আপনার প্রদত্ত মোবাইল নম্বর দিয়ে পেয়ে যাবেন। শুধু প্রিন্ট করে এয়ারপোর্টে নিয়ে যাবেন।
যেটাতে আপনার সুবিধা।

১২) রিপোর্টে নামের বানান ভুল আসছে, তাহলে কি রিপোর্ট ভুল?
উত্তরঃ না। রিপোর্ট ঠিক আছে। এটা অপারেটরের টাইপিং এ ভুল। আপনার পাসপোর্ট নাম্বার আপনার পরিচয় বহন করে।

১৩) রিপোর্টে কোন ধরনের ভুল থাকলে আমি কি করব?
উত্তরঃ রিপোর্ট নিয়ে DNCC আইসোলেশন সেন্টার এ চলে আসবেন। এখানে correction রুম আছে। আপনাকে দ্রুত কারেকশন করে দেবে।

১২) আমার রিপোর্ট করোনা পসেটিভ এসেছে। এখন কি করব?
উত্তরঃ আপনি ফ্লাইট চেঞ্জ করবেন। যদি চেঞ্জ না করা যায় তাহলে আপনার টাকা টা নষ্ট হবে। এখানে কিছুই করার নেই।

১৩) আমি নেগেটিভ হয়ে গেছি কিনা সেটা দেখার জন্য ১৪ দিন পর কি এখানে আবার টেস্ট করতে পারব কিনা?
উত্তরঃ না। আপনার এটা অন্য কোন হাসপাতাল থেকে করতে হবে। সেখানে নেগেটিভ আসলে আবার এয়ারটিকেট কাটলে তারপর আপনি পূর্বের নিয়মে DNCC করোনা আইসোলেশন সেন্টারে এসে corona free certificate এর জন্য স্যাম্পল দিবেন।

১৪) আমি কি ল্যাবএইড, স্কয়ার থেকে টেস্ট করায়ে বিদেশ যেতে পারব?
উত্তরঃ না।

১৫) সিরিয়াল কি ভাবে দিব?
উত্তরঃ আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে টোকেন দেয়া হচ্ছে। সেই অনুযায়ী সিরিয়াল পাবেন। বসার ব্যবস্থা আছে। সিরিয়াল ধরে ডাকবে। এটি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী মেইনটেইন করছে। কোন ঝামেলা হবেনা।

বিঃ দ্রঃ নিচের ফর্মটি প্রিন্ট করে ফিল আপ করে নিয়ে আসতে পারেন অথবা আইসোলেশন সেন্টারেও ফর্মটি দেয়া হবে। সেখানেও ফিল আপ করতে পারবেন।

সঠিক ও নির্ঝঞ্ঝাট ব্যবস্থা করার জন্য আমি মাননীয় সিভিল সার্জন মহোদর, ঢাকা; স্বাস্থ্য অধিদপ্তর; বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ; সর্বোপরি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।

ডাঃ খন্দকার সুরাইয়া জাহান
সহকারী সার্জন
৩৯ বিসিএস
সংযুক্তিঃ সিভিল সার্জনের কার্যালয়, ঢাকা

Categories
Lifestyle

ISHAAN Sings Sound of Silence by Simon and Garfunkel.

https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=10158294670277254&id=511682253&sfnsn=mo&extid=UsWR8Ig7lpnYyKIs&d=n&vh=i

Categories
Lifestyle

শিরোনাম যে জন প্রেমের ভাব জানে না। Cover – Fossil ft Purnadash

https://m.facebook.com/watch/?v=623630834966776&_rdr

Categories
Lifestyle

Mere Mehboob Qayamat Hogi Movie : Mr. X in Bombay (1964) Original Singer : Kishore Kumar

https://m.facebook.com/watch/?v=2376963409273894&_rdr